অনুসন্ধান

মূল উৎপত্তি

জুলাই ১৫, ২০১৭ তারিখে অরক্ষিত ‘অরক্ষিত স্বাধীনতার দীর্ঘশ্বাস’ নামক একটি ফেসবুক পেইজের ভিডিওতে বলা হয়

“স্কয়ার কোম্পানির ওষুধ জিফ-সিআই ক্যাপসুলটি আমরা খাচ্ছি আয়রন সাপ্লিমেন্ট হিসেবে। দেখা গেছে এই ক্যাপসুল চুম্বক দ্বারা আকৃষ্ট হয়, তার মানে হলো এটার মধ্যে যে কার্বোনিল আয়রন আছে সেটা সরাসরি মেগনেট দ্বারা আকর্ষণ করে। যার ফলে মানুষের মৃত্যু হতে পারে। ড্যামেজ হতে পারে লিভার ও কিডনি।”

আলোচ্য ভিডিওটি শেয়ার হয়েছে ৭০ হাজারের উপর। আগস্ট ৩, ২০১৭ তারিখে “R97 ফেসবুক পেইজ” নামক আরেকটি বেনামী ফেসবুক পেইজের ভিডিও ১ লাখ ১৮ হাজার বার শেয়ার হয়।

জনৈক মহিলাকে তার ডাক্তার আয়রনের ঘাটতি সম্পর্কিত সমস্যার জন্য SK-F -এর Zeefol-CI ক্যাপসুল পরামর্শ দিলে, তিনি সেটিকে চ্যালেঞ্জ করে ভিডিওতে প্রমাণ করার চেষ্টা করেন যে চুম্বকে আকর্ষিত হওয়া এই ট্যাবলেটের উপাদান শরীরের জন্য ক্ষতিকর।

বলার অপেক্ষা রাখে না, শুধুমাত্র পেইজের ফলোয়ার বাড়ানোর জন্য ছড়ানো এই ভিডিওগুলোর পেছনে সত্যতা অনেকেই তুলে ধরার পরও, পেইজগুলো এসকল ভিডিও তাদের পেইজ থেকে সরায় নি।

চুম্বক দ্বারা আকৃষ্ট হওয়ার ব্যাখ্যা

আয়রন সাপ্লিমেন্ট হিসেবে দেওয়া ট্যাবলেট বা ক্যাপসুলের প্রধান উপাদানই আয়রন (Iron) বা লোহা। বাজারে যে ধরনের আয়রন ট্যাবলেট/ক্যাপসুল/সাপ্লিমেন্ট পাওয়া যায় তাদের মধ্যে আয়রন বিভিন্ন উপায়ে থাকে। যেমন, ফেরাস আয়রন (Ferrous Iron), আয়রন পলিম্যালটোজ কমপ্লেক্স (Iron Polymaltose Complex), কার্বনিল আয়রন (Carbonyl Iron) ইত্যাদি। [1] এরমধ্যে ভিডিওতে উল্লেখিত ক্যাপসুলের উপাদান ছিলো কার্বনিল আয়রন (Carbonyl Iron)। এটিতে ৯৭ থেকে ৯৯.৫ ভাগ বিশুদ্ধ আয়রন থাকে।

তাই এই জাতীয় ঔষধে মিশ্রিত লোহা চুম্বক দ্বারা আকৃষ্ট হওয়াই স্বাভাবিক, যেহেতু লোহার সাধারণ ধর্মই এটি। এছাড়াও এই ধরণের ঔষধে অন্য কিছু উপাদান যেমন জিংক বা ফলিক এসিড ইত্যাদি থাকে। চুম্বক ধরা হলে লোহার দানাগুলো আকৃষ্ট হলেও অন্য দানাগুলো সাধারণত আকৃষ্ট হয় না। অনুরুপ ফলাফল অন্য যে কোন কোম্পানির আয়রন সাপ্লিমেন্টের বেলায়ও পরিলক্ষিত হয়।

আয়রন ট্যাবলেট/ক্যাপসুল কেন খাওয়া হয়?

মানবদেহের একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান আয়রন বা লোহা। রক্তে যে উপাদানের উপস্থিতির জন্য রক্তের রঙ লাল হয় তাকে বলা হয় হিমোগ্লোবিন। এটি মানবদেহে অক্সিজেন পরিবহনের কাজ করে। হিমোগ্লোবিনের একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হলো আয়রন বা লোহা। শরীরের আয়রনের স্বল্পতা হলে হিমোগ্লোবিন উৎপাদন ব্যাহত হয়। একে Iron Deficiency Anemia বা আয়রনের স্বল্পতাজনিত রক্তস্বল্পতা বলে। এই রোগের চিকিৎসায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকগণ আয়রন ট্যাবলেট ব্যবহার করে থাকেন। [2]

বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী খেলে, এই ওষুধে ভয়ের কিছু নেই। বরং বিজ্ঞানীরা বলছেন, ফেরাস আয়রনের চেয়ে কার্বনিল আয়রনে Toxicity তুলনামূলক কম। [3]

পাদটীকা

তথ্যসূত্র

  1. "Iron Deficiency in Pregnancy and the Rationality of Iron Supplements Prescribed During Pregnancy". Medscape Journal of Medicine. (ডিসেম্বর ১৬, ২০০৮).
  2. "Iron". University of Marryland Medical Center.
  3. VR Gordeuk, GM Brittenham, CE McLaren, MA Hughes and LJ Keating. "Carbonyl iron therapy for iron deficiency anemia". Blood Journal. (মার্চ ১, ১৯৮৬).

মন্তব্য

আমাদের ফেসবুকগ্রুপে আলোচনায় যুক্ত হোন।: www.facebook.com/groups/jaachai