অনুসন্ধান

মূল উৎপত্তি

১৬ মার্চ ২০১৮ সালে ekattornews24.com নামক একটি নিউজ পোর্টাল “বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা” শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশ করে। প্রায় একই সাথে newsbangla21.com.bd নামক আরেকটি নিউজ পোর্টাল “দ্য স্টাটিসটিক্স ইন্টারন্যাশনাল জরিপে শেখ হাসিনাকে নিয়ে বেরিয়ে এলো নতুন তথ্য” শিরোনামে নিউজ করে। নিউজ দুটি হুবহু একই রকম। এগুলোতে বলা হয়-

“প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন। এই তালিকার প্রথমে আছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, আর তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। দক্ষ নেতৃত্ব, রাষ্ট্রনায়কোচিত গুণাবলী, মানবিকতা এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ এবং বাস্তবায়নসহ ২০১৭ সালে আন্তর্জাতিক মিডিয়াতে আলোচনায় থাকার বিষয় বিবেচনা করে সিঙ্গাপুর ভিত্তিক গবেষণা সংস্থা ‘দ্য স্টাটিস্টিকস ইন্টারন্যাশনাল’ নিজেদের করা এক জরিপ শেষে এই ঘোষণা দেয়।”

এ নিউজদুটি ১৬ মার্চ প্রকাশ হলেও ১৯ মার্চ পর্যন্ত এই বিষয়টি তেমন আলোচিত হয় নি। ১৯ মার্চ ২০১৮ সোমবার মন্ত্রীসভার বৈঠকের পর মন্ত্রীপরিষদ সচিব শফিউল আলম সাংবাদিকের ব্রিফিংয়ে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত করায় মন্ত্রীসভা প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জ্ঞাপন করছে। ব্রিফিংয়ে এ সম্পর্কে তাঁর পুরো বক্তব্যই মূলত ছিলো ekattornews24.com এর হুবহু নকল। বলার অপেক্ষা রাখে না, মন্ত্রীপরিষদ সচিবের ব্রিফিং কিংবা মন্ত্রীসভার সদস্যদের অভিনন্দনের মূল উৎস ছিলো এই অখ্যাত ৭১নিউজ২৪ অনলাইন পোর্টালটি।

এরপরপরই প্রায় সব সংবাদ মাধ্যম মন্ত্রীপরিষদ সচিবের বক্তব্য অনুযায়ী সংবাদ প্রকাশ করে এবং এটি ভাইরাল হয়ে যায়। এ সংবাদ মাধ্যমগুলোর মধ্যে- বিডিনিউজ২৪ডটকম, বাংলা ট্রিবিউন, চ্যানলে আই অনলাইন, ইংরেজি সংবাদ মাধ্যম ঢাকা ট্রিবিউন, ডেইলি অবজার্ভারের মতো সংবাদ মাধ্যমও রয়েছে। এছাড়াও প্রায় ৫০ টির বেশি অনলাইন পোর্টাল এবিষয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে।

দ্য স্টাটিসটিক্স ইন্টারন্যাশনাল নামক কথিত গবেষণা প্রতিষ্ঠানটি একটি অস্তিত্বহীন কাল্পনিক সংস্থা। উল্লেখিত সংবাদ এবং মন্ত্রীপরিষদ সচিবের বিবৃতিতে প্রতিষ্ঠানটিকে সিঙ্গাপুরভিত্তিক আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন গবেষণা সংস্থা বলে দাবি করা হলেও, ইন্টারনেটে এই প্রতিষ্ঠানের নামে কোনও ওয়েবসাইটও পাওয়া যায়নি। পাওয়া যায়নি তাদের অফিসের ঠিকানা, ইমেইল ঠিকানা কিংবা কোনও ফোন নম্বর। ফেসবুক টুইটারের মতো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও এই প্রতিষ্ঠানের কোনও অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যায় নি।

এছাড়াও উল্লেখিত সংবাদ অনুযায়ী, এ জরিপে প্রথম হয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং তৃতীয় হয়েছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। কিন্তু ভারতের কোনও নির্ভরযোগ্য সংবাদ মাধ্যমে দ্য স্টাটিসটিক্স কর্তৃক নরেন্দ্র মোদিকে বিশ্বের সেরা প্রধানমন্ত্রীর খেতাব দেওয়া সংক্রান্ত কোনও সংবাদ প্রকাশ হয়নি। স্পষ্টতই বুঝা যাচ্ছে, ৭১নিউজ২৪ ইচ্ছাকৃতভাবেই ভারত ও কানাডার প্রধানমন্ত্রীর নাম দিয়ে সংবাদটিকে আরো বিশ্বাসযোগ্য করার চেষ্টা করেছে।

উল্লেখ্য, এর আগেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে এ ধরনের বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করেছিলো ‘বাংলা ইনসাইডার‘ নামক একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল।

গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা মিথ্যা সংবাদে বিভ্রান্ত হচ্ছেন কেন?

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে করা বাংলা ইনসাইডারের বানোয়াট সংবাদ নিয়ে জাতীয় সংসদে (দশম সংসদের ১৮ তম অধিবেশনে) আলোচনা করেন একজন সংসদ সদস্য। ক্রমাগত বানোয়াট ও কাল্পনিক সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে লাইক অর্জন করার পরও বাংলা ইনসাইডারকে সম্মুখীন হতে হয়নি কোন প্রশ্নের। আর তাদের উদাহরণ থেকেই এবার ৭১নিউজ২৪ নামক অনলাইন পোর্টাল বানোয়াট সংবাদ প্রচার শুরু করে, যা দেখেবিভ্রান্ত হয়েছেন মন্ত্রীপরিষদের সদস্যরা।

প্রশ্ন হচ্ছে- একেবারেই কম পরিচিত একটি অনলাইন নিউজের একটি মিথ্যা সংবাদে রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা কেন বিভ্রান্ত হলেন, যেখানে সংবাদটির সত্যতা যাচাই এর সব ধরনের সুযোগই তাদের কাছে ছিলো? আমরা প্রত্যাশা করি তাঁরা এ ধরনের সংবাদের ব্যাপারে আরো সতর্কতা অবলম্বন করবেন। আশঙ্কার বিষয় হচ্ছে, এভাবে নিউজপোর্টালগুলো জবাবদিহিতা থেকে বারবার বেঁচে গেলে উৎসাহিত হবে আরও বানোয়াট সংবাদের প্রণেতারা। তখন তাদের দ্বারা ঘটিত ক্ষতির দায়ভার কি আদৌ কেউ নেবে?

প্রথম প্রকাশ:
সর্বশেষ হালনাগাদ:

পাদটীকা

মন্তব্য

আমাদের ফেসবুকগ্রুপে আলোচনায় যুক্ত হোন।: www.facebook.com/groups/jaachai