অনুসন্ধান

মূল উৎপত্তি

এই গুজবটি ইমেইল ও সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন পেইজে ভাইরাল হয় ২০১১ সালের দিকে। এই গুজবটি মূলত ‘খাদ্য ও পানীয়র মাধ্যমে এইচআইভি সংক্রামণ’-এর পুরনো গুজবগুলোর একটি সংস্করণ মাত্র। এছাড়াও এই বার্তায় কোকাকোলাকে পেপসির একটি কোম্পানি বলা হচ্ছে। যা সঠিক নয়।

ভারতে খাদ্যের মাধ্যমে এইচআইভি ছড়ানোর এমন কোন ঘটনার প্রমাণ পাওয়া যায় নি। এছাড়াও খাদ্য ও পানীয়র মাধ্যমে এইচআইভি ভাইরাসের সংক্রামণ ঘটে না। আমেরিকার সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল ও প্রিভেনশন এই ব্যাপারে উল্লেখ করে―

এইচআইভি দীর্ঘক্ষণ শরীরের বাইরে অবস্থান করতে পারে না। এমনকি খুব সামান্য পরিমাণের এইচআইভি আক্রান্ত রক্ত কিংবা শুক্রাণু পাকস্থলীতে গেলে, বাতাসের সংস্পর্শে আসলে, রান্নার উত্তাপ ও পাকস্থলীর এসিড ভাইরাস ধ্বংস করে ফেলবে। তাই, খাদ্যের মাধ্যমে এইচআইভি সংক্রামণের কোন ঝুঁকি নেই।

You can’t get HIV from consuming food handled by an HIV-infected person. Even if the food contained small amounts of HIV-infected blood or semen, exposure to the air, heat from cooking, and stomach acid would destroy the virus.

Though it is very rare, HIV can be spread by eating food that has been pre-chewed by an HIV-infected person. The contamination occurs when infected blood from a caregiver’s mouth mixes with food while chewing. The only known cases are among infants.

এছাড়াও এমন ঘটনা সংক্রান্ত কোন সংবাদ এনডিটিভি কিংবা অন্য কোন বিশ্বত সূত্রে প্রকাশিত হয় নি।

পাদটীকা

তথ্যসূত্র

  1. U.S. Centers for Disease Control and Prevention. "HIV Transmission". (Updated on: December 21, 2016)

মন্তব্য

আমাদের ফেসবুকগ্রুপে আলোচনায় যুক্ত হোন।: www.facebook.com/groups/jaachai

দাবীটি প্রচারণার সময়কাল