অনুসন্ধান

মূল উৎপত্তি

মে ২৩ তারিখের দিকে এই গুজবটি বাংলাদেশের বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট থেকে প্রচার করা হয়। প্রচারিত তথ্যমতে এইগুলো বাংলাদেশের ভোলা জেলার বোরহান উদ্দিন থানার আবদুল জব্বার মহাবিদ্যালয়ের ৭জন ধর্ষিত ছাত্রীর। এই সাতজনকে একদল মুখোশ পড়া যুবক তুলে নিয়ে যায় এবং ধর্ষণের পর দুইজনকে হত্যা করে। বাকিদের স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এটি সম্পূর্ণ বানোয়াট একটি খবর। এমন কোন ঘটনার প্রমাণ বা দাবী সোশ্যাল মিডিয়ার এই পোস্টটি ছাড়া কোথাও পাওয়া যায় না।

এই পোস্টটিতে ব্যবহৃত ছবিগুলো ভারতের ছত্তিসগড় প্রদেশে রায়পুর শহরে একটি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতদের।[1] ঘটনাটি ঘটে ২০১৫ সালের অক্টোবর মাসে।[2][3] প্রায় ৭৫ জন ছাত্রছাত্রীকে নিয়ে একটি ট্র্যাক্টর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে পড়লে সেখানে ৫ জন মারা যায়, যাদের ৩ জন ছাত্রী ছিল। ছাত্রছাত্রীরা সোনাই ধাপাই মন্দিরে ‘নভোরাত্রি’ উৎসবের জন্য রাজকাট্টি গ্রাম থেকে ভ্রমণ করছিলো।

গুজবটি ছড়িয়ে পড়ার ক’দিন পর এই ‘ধর্ষিতাদের’ হিন্দু দাবী করে এটিকে সাম্প্রদায়িক রূপ দেওয়ার চেষ্টা চালানো হয়।

পাদটীকা

তথ্যসূত্র

  1. "Raipur : full of school students tractor turnaround, five innocents killed, 30 injured". Patrika New. (অক্টোবর ১৭, ২০১৫).
  2. "Raipur: 5 schoolchildren killed, 40 injured as tractor turns turtle in Gariaband". International Business Times. (অক্টোবর ১৭, ২০১৫).
  3. "Five students die, over 30 injured in accident in Chhattisgarh". The Times of India. (অক্টোবর ১৭, ২০১৫).

মন্তব্য

আমাদের ফেসবুকগ্রুপে আলোচনায় যুক্ত হোন।: www.facebook.com/groups/jaachai

প্রচারিত মাধ্যম

কোন মিডিয়া অন্তর্ভুক্ত করা হয় নি? রিপোর্ট করুন